জীবনযাপনমত-মতান্তর

মোদের কোনো সেক্স নাই

অনিরুদ্ধ বল

সেক্স ! সেক্স ! সেক্স । ছোটবেলায় একটা ছেলেকে বলে ফেলেছিলাম ওর মাকে ওর বাবা আদর করেছে বলেই ও জন্মেছে ! ব্যাস ! শালা গদাম করে নাকে বসিয়ে দিয়েছিল এবং বসিয়ে দিয়ে বলেওছিল হসপিটালের আলমারিতে থরে থরে বাচ্চা সাজানো থাকে ওখান থেকেই ও এসেছে তবে আমার মতো ফালতু ছেলে ওই আদরেরই ফল । বেচারা হার্দিক পান্ডিয়ার হয়েছে আমার দশা আর ভারতের কোটি কোটি লোকের হয়েছে পান্ডিয়ার দশা, মানে রাত বারোটার পর চুনকু চু চুং করলেও সকালে উঠে ” অশ্লীলতা শব্দ মোরা আগে শুনি নাই।”  মহামানব থুরি হিপোক্রিসির সাগরতীরে এসে আমরা খুবই আনন্দে ডুবকি লাগাচ্ছি‌‌ এবং ভিড় বাসে আরামসে যৌনাঙ্গ চুলকে আঙুলের গন্ধ শুঁকতে শুঁকতে আমরা প্রাণপণে ভাবমূর্তি আগলাচ্ছি । প্লেয়াররা খেলায় হারলে আমরা তাদের বাড়ি ভাঙচুর করবো প্লেয়াররা সেক্স করার কথা বললে আমরা তাদের বেডরুমে ঢিল ছুঁড়বো! আমরা কেবল প্লেয়ার চাইনি আমরা চেয়েছি আদর্শ বৈদিক ভারতের ঋষি ,যাদের সেক্স নয় মহাতেজ থাকবে । হার্দিক পান্ডিয়া বলেছেন উনি সেক্স করতে ভালোবাসেন ,ওনাকে কান ধরে টেনে হেডস্যারের কাছে নিয়ে যাবো , উনি বলেছেন উনি বহুগামী অতএব ওনাকে ক্রিকেট টিম থেকে লাথি মেরে বের করে দেবো যেমনভাবে বাংলাদেশের ওই মেয়েটার একাধিক বয়ফ্রেন্ড থাকার কথা শুনে আমরা চুলের মুঠি ছিঁড়ে নেওয়ার বা মুখে অ্যাসিড মারার হুমকি দিয়েছিলাম । তবে আমরা  আই পি এলে পেটি নাচ দেখবো এবং করিনা কপূরকে তন্দুরি মুরগির সঙ্গে তুলনা করবো আর রাত যত বাড়বে মোবাইলে ল্যাংটো ছবি দেখে আমাদের বুলবুল পাখিরা ময়না টিয়া হয়ে উঠবে । তাহলে ইয়ে দিল আদপে ঠিক ক্যায়া চাহতা হ্যায়?

আমরা চাই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক । আমাদের বুক গর্বে ফুলতে ফুলতে একদিন গদাম করে বার্স্ট করবে । সেক্স ফেক্স ওসব কথা নাহয় সলমন, শাহরুখদের জন্য তোলা থাক; প্লেয়ারদের অতো বাড়বাড়ন্ত কীসের ?? তোকে ব্যাট দিয়েছি খেলবি ,দেশের নাম উজ্জ্বল করবি খুব বেশি হলে  টি এম টি বার হাতে টিভিতে দাঁত ক্যালাবি।

এবার ধরুন আপনি এমন একটা দেশে বাস করেন যেখানে পায়খানা করাকে খুব খারাপ চোখে দেখা হয় কিন্তু পায়খানা না করলে আপনি বাঁচবেন না, মানে ওই দেশে পায়খানা সবাই করে কিন্তু পায়খানার ব্যাপারে প্রকাশ্যে আলোচনা করা বারণ ,এরম অবস্থায় কোনো লোক আপনাকে বারবার জিজ্ঞাসা করছে,

আপনি জীবনে প্রথমবার কবে হেগেছিলেন ?

আপনার কেমন কমোডে বসে হাগতে ভালো লাগে ?

হঠাৎ আপনার হাগা পেয়ে গেলে আপনার সহকর্মীরা কি তাদের বাথরুম ব্যবহার করতে দেয় ?

অথচ যতবার আপনি এই প্রশ্নগুলোর উত্তর দিতে গিয়ে হাগার কথা বলছেন উনি ততবারই নিজের কানে আঙুল এবং নাকে ন্যাপথলিন চেপে ধরছেন , যেন ভাবখানা এমন যে সে মোটেই হাগার গন্ধ বা কথা কোনোটাই শুনতে চাননি । কফি উইথ করণ শো টি খেয়াল করলে দেখা যাবে যৌনতা বা যৌনজীবন সংক্রান্ত অবান্তর কিছু প্রশ্নই সাধারণত এই শোয়ের মূল অবলম্বন। যেমন আমির খান বিছানায় কেমন বা ইন্ডিয়ান প্লেয়াররা সেক্স করার জন্য পরস্পর রুম এক্সচেঞ্জ করে কিনা এই সব দিয়েই এই শোয়ের প্রশ্নপত্র তৈরী হয়।

তাহলে তো ভালোই!

যৌনতা বা যৌনজীবন সম্পর্কে যাবতীয় রাখঢাক দূরে সরিয়ে রাখা হচ্ছে , কিন্তু এই শোয়ের ক্ষেত্রে এই কথা খাটে না কারন এগুলোকে নর্মালাইজ করা মোটেই এই শোয়ের উদ্দেশ্য নয় বরং এইসব বিষয় নিয়ে ইনিয়ে বিনিয়ে যৌন সুড়সুড়ি দেওয়াই এই শোয়ের লক্ষ্য। সেখানে হার্দিক পান্ডিয়া খুব স্বাভাবিকভাবে সঞ্চালকের প্রশ্ন অনুযায়ী নিজের যৌনজীবন সম্পর্কে কিছু সাধারণ কথা বলেছিলেন । বেচারা কে এল রাহুলের অবস্থা আরো খারাপ কারন তার টিম থেকে বাদ যাওয়ার পেছনে এক এবং একমাত্র কারন হল সঙ্গদোষ ।

খানিক তলিয়ে ভাবলে দেখা যাবে ভারতে ক্রিকেট প্লেয়ারেরা খুব সহজেই ইউথ আইকন হয়ে ওঠেন, তাই শচীন যে হেলথ ড্রিংকের অ্যাড দেয় সেই হেলথ ড্রিংকই বাড়িতে বাড়িতে ঢোকে। এরকম অবস্থায় কিছু মেকি নীতিশিক্ষাও ওই খেলোয়াড়দের মাধ্যমে সবার মাথায় ঢোকানোর চেষ্টা চলে ঠিক যেমন ভাবে গোটা বলিউড একরাতে চরম দেশভক্ত হয়ে ওঠে । আসলে খুব সুচারুভাবেই সিনেমা এবং ক্রিকেট এই দুটো মাধ্যমকে নীতিপুলিশির হাতিয়ার করে তোলার প্রক্রিয়া এদেশে শুরু হয়ে গেছে । এই পোড়া দেশের মানুষের কাছে  সিনেমা আর ক্রিকেট এই দুটোই তো রসদ ছিল সেগুলোকেও কেড়ে নেওয়া হচ্ছে –

মোদের কোনো সেক্স নাই

থাকতে নাই

মোরা লিঙ্গকে  পাখি বলি আর পাখিকে মরালিটি।

যদিও আমরাই তো আস্ত এক একটি লিঙ্গ ,মাঝে মাঝে নিজেদের আয়নায় দেখে চমকে উঠি ।তারপর ব্লাডি মেরি, ব্লাডি মেরি,ব্লাডি মেরি ।

ছবি – ইনটারনেট

অনিরুদ্ধ বল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের স্নাতকোত্তর স্তরের ছাত্র। ভালোবাসেন ঘ্যামচ্যাক দক্ষিণী সিনেমা এবং সিরিয়াস সাহিত্য। রাজনীতি নিয়ে আগ্রহী এবং হতাশ। ‘খোয়াবনামা’ নামক নাট্যদলের সঙ্গে যুক্ত।
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Close
Bitnami