আন্তর্জাতিক
Trending

ব্রাউন ব্যাগ – ২ অরগ্যাজম গ্যাপ : মুন্নী’র বদনামী, সিদ্ধ ডিম ও আম্মা ডট কম

অনামিকা বন্দ্যোপাধ্যায়

 

ব্রাউন ব্যাগ – ২

অরগ্যাজম গ্যাপ : মুন্নী’র বদনামী, সিদ্ধ ডিম ও আম্মা ডট কম

অনামিকা বন্দ্যোপাধ্যায়

ইরম শর্মিলা চানু অনশন ভাঙিয়াছেন। দীর্ঘ ষোল বৎসর সংগ্রামের পর। তাহার একটি ইচ্ছা এখানে অন্যতম ভূমিকা লইয়াছে সেটি হল : প্রেমিকের সাথে থাকিতে পারার  আকাঙ্ক্ষা। এখানে মিডিয়া ( হ্যামলেট-কমপ্লেক্সিয় সুত্রানুযায়ী )- একটি শরীর সম্পর্কের ইঙ্গিত  ও আরেকটি- তার অবদমন পাইয়াছে । নল ঢুকাইয়া বা  অন্য যেকোনো ভাবে শরীর কে তীব্র ক্লেশ দ্বারা যে প্রতিবাদ একমাত্র তাহাই চরম বৈপ্লবিক। অশরীরী, অযোনি স্ট্যাম্পিত যাহা কিছু সকলি হেব্বি বীরাত্মক । নেতাজীর বউ থাকিবেনা, গান্ধী রমণীদিগের পাশে শুইয়া থাকিবেন কিন্তু প্রবল অবদমন-বলে ‘ইন্টারকুরস’ করিবেন না, নরেন মোদী তাহার শাদী করা বউকে ডঃ হাজরা-সুলভ  বেমালুম ভ্যানিশ  করিবেন ; অতএব ইরম শর্মিলাও শাদি করিবেননা, মানে যৌন-সঙ্গম, বাচ্চা – আদি এই সব করিবেন না। করিলেই বিপ্লবের পরিসমাপ্তি ঘটিবে। এইখানে প্রাপ্ত ইনফারেন্স -১: রাষ্ট্রকে মানসম্মান করিলে, মানিয়া চলিলেও ‘সতীত্বে’ বিশ্বাস ও ইমেজ বানাইতে হইবে । ইনফারেন্স -২: রাষ্ট্রের বিরোধিতা, অ্যানার্কি ইত্যাদিতেও সতীপনা সমান আবশ্যক। অতএব বটম-লাইন খাড়াইলো- ভারত ও ভারতের অ্যান্টী-থিসিস দুইএরই ইমেজ হওয়া চাই-  যৌনবিহীন।

ইহা আজকের মত বুঝিয়া লইয়া, অতএব ঘর সাফা করিতে যাইব, দেখি ব্রাউন ব্যাগ  ঠ্যাং টেবিলে তুলিয়া কুটিপাটি হাসিতেছে । মর্নিং কফি পর্যন্ত শেষ করে নাই। আমার মটকা উষ্ণ হইবার পূর্বে সে আমায় হস্ত-মুদ্রা  প্রদর্শন করিয়া ডাকিয়া লইল –

  • একটি সাইট পাইয়াছি, না দেখিলে যে কি আফসোশ করিবে

ব্রাউন ব্যাগ খ্যাঁক-খুক হাসিতে থাকে।

  • কি সাইট শুনি

ব্রাউন ব্যাগ, হাসি থামাইতে ব্যর্থ দেখিয়া আমিই মস্তক ঝুঁকাইয়া ল্যাপটপে চোখ রাখিলাম।

‘আম্মা ডট কম ‘।

  • ইহা একটি সাইট ? এখানে কি হইয়া থাকে  ?
  • এখানে ভারতীয় ধেড়ে খোকারা একদল  নারীর কাছে সালিশি চাহে
  • ??
  • আজ্ঞে , সেও আবার যৌন সমস্যায়
  • তা’হইলে ডাক্তার বল, একদল নারী আবার কি ?

ব্রাউন ব্যাগ খ্যাঁক শব্দে হাস্য করে। আমি ইঙ্গিত বুঝিয়া লই।

কিছুক্ষণ চক্ষু বুলাইয়াই আমি ভ্যাকুয়াম রাখিয়া সটান বসিয়া গিয়াছি । বি.বি কহে,

  • জানিতাম।  কি, বলি নাই ? হেব্বি রসদ ।

 

নমুনা-১

প্রিয় আম্মাগণ,

আমার বয়স উনচল্লিশ। আমি বিবাহিত ও আমার একটি দেড় বৎসরের শিশু কন্যা আছে, আমি গত দশ বছর যাবত হস্তমৈথুন করিয়া আসিতেছি। ইহা তখনি ঘটিয়া থাকে, যখন আমি একাকী সময় যাপন করি।

আমি হিন্দু।  ব্রাহ্মন সন্তান। আই নীড ইয়োর হেল্প।

ইতি,

(নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)

প্রিয় বৎস্য,

তুমি কষ্ট পাইওনা। ভুল তো হইতেই পারে। তুমি সেই মুহূর্তে হরে-কৃষ্ণ মন্ত্র জপ করিবে।

গ্লাস পেইন্টিঙ্গ তোমার ভাল লাগে ? তাহা হস্তমৈথুন কালে করিতে পারো।

ইতি,

তোমাদিগের আম্মারা

নমুনা-২

আমার প্রিয় আম্মারা,

আমার বয়স আটাশ। আমি বিবাহের পূর্ব হইতে এই কু-অভ্যাসে লিপ্ত। আমার কি মুক্তি নাহি ? আমার হস্ত ‘কে আজিকাল বড় ঘৃণা হয়। কিন্ত থামিতে পারিনা।

ইতি,

(নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)

 

বৎস্য,

হস্তমৈথুনের বাসনা- পাশবিক বাসনা। যাহারা এর সপক্ষে বলে ,

তাহারা নোংরা পুঁথি পড়িয়া থাকে । ইহা মনো-বৈকল্য। হস্ত বাঁধিয়া রাখিবে।

ইতি,

তোমাদিগের আম্মারা

 

‘এই হস্ত অসুস্থ হস্ত । ইহা অসুখ।‘

“হস্ত  সামলাইয়া রাখুন । চিকিৎসা করান ‘

‘আপনি না পারিলে, কল্কি অবতার আপনার হস্তের ব্যাবস্থা করিবেন ।’

পরপর এইভাবে স্ক্রোল করিতে করিতে দেখি- কেহ লিখিয়া গিয়াছে  ঃ

জগন্নাথগণ,

হাত থাকিতে যখন হাত নাহি , তখন সংস্কৃতে কহি ঃ নিজ লিঙ্গম পোঁদে ভরম ।

ইতি,

নাম প্রকাশে ইচ্ছুক –

মুন্নি নথাম্মেল ছবি দেখিয়া চিনিতে পারি।

  • আরে এতো আমাদের মুন্নি। পাশের বাড়ির।
  • উফফ, কি জব্বর । উচিত দিয়াছে।

ব্রাউন ব্যাগ টেবিলের উপর লাফাইয়া ওঠে।

  • মুন্নি একবার পোস্ট-হোক কলরবে, কাহাকে হস্তমৈথুনের হস্ত-মুদ্রা প্রদর্শন করিয়াছিল। তাহাতে বেপাড়ার ছোঁড়ারা ‘রেন্ডি’ বলিয়া তাহার নামে পোস্টার সাঁটাইয়া দিল। । তো, মুন্নি উহাদের মুখে সিদ্ধ ডিম ভরিয়া, গুলাবী- গ্যাঙ কায়দায় উদমা ক্যালাইয়াছিল।
  • কেন কেন ডিম কেন ?
  • পুরা-কালে ডাকাত দের সন্দেশ খাওয়াইয়া  ক্যাল দেওয়া হইত, সেইখান হইতেই … হইয়া থাকিবে
  • শরীর ও যৌনতা লইয়া তোমাদিগের এই কারবার দেখিয়া , বড়ই সমবেদনা জাগে

ব্রাউন ব্যাগ অহেতুক ল্যাজ নাড়াইতে থাকে।

  • আসলে তফাত অতি সূক্ষ্ম ও মুদ্রা পিঠের ওপারে থাকার মত গোলমেলে। অনেকের মতে অর্গাজমই আত্ম আনন্দের মুল লক্ষ্য, তাহা সঙ্গী বেতিরেকেও সম্ভব যখন, তখন তাহা আরও সুলভ। আর তাহা কেবলই পুরুষকে আনন্দ দিবে, এই রূপ পেট্রিয়ারকি বলিয়া থাকে। এইভাবে যুগ যুগ ধরিয়া অর্গাজম গ্যাপ এর সৃষ্টি হইয়া চলিতেছে।
  • অর্গাজম গ্যাপ ? !
  • লোকে ভাবিয়া থাকে –  ইহা বায়োলজিকাল, আসলে ইহা একটি সেলফ-ফুলফিলিং প্রফেসি,  হেটেরো-নরমাটিভ ক্ষেত্রের পুরুষরা ভাবিতে চাহে যে  নারীর শরীর এক পাজল এবং তাহারা তাহা সলভ করিতে চাহেনা। আর অপরপক্ষে নারীদেরও কখনো এই আত্মরতির সুলুকসন্ধান শিখানো হয়না। যাহাতে তাহারা শরীর মধ্যস্থ এই আনন্দ-বোতাম বা ক্লিটোরিসের সন্ধান না পাইয়া  যায়। বিশ্বজুড়ে নারীদের এই ক্লিটোরিস সচেতনতা আসিলেই, তাহারা এই ধাপ্পাবাজী’র পলিটিক্স ফুটো করিয়া দিবে-  এই অরগাজম-গ্যাপ ও কমিয়া আসিবে।

যদি তোমার নিজ আনন্দ হইতে বঞ্চিত হইবার অগ্রে কোনরূপ বাধা থাকে , তাহা হইল সমাজ-সিদ্ধ  মনগড়া এই বাধা-  ট্যাবু, যাহা তোমাকে ভয় পাওয়ায়। আর পাওয়ায় তোমার ক্যালানে প্রেমিক / সঙ্গী  যে  তোমার আনন্দের কথা ভাবিয়াও দেখেনা।

একরকম নিজমনে আউড়াই।

  • Sex should be fun! , ব্রাউন ব্যাগ পুচ্ছ নাচাইয়া কহে।
  • It should be carefree. কিছু সেক্সিস্ট হেটেরো-নরম্যাটিভ মিথ এসব প্রচার করিতে চাহে যে সেক্সের চরম হইল সঙ্গীর ভ্যাজাইনায় এজাকুলেট করিতে পারা।
  • উফ … টায়ার্ড অফ দিস মিথ ।
  • এবং সর্বোপরি- দারুণ এই যৌন-আনন্দ তুমি একাই সৃষ্টি করিতে পার, মাসটারবেশান তোমাকে এই আলোকপ্রাপ্তি  দিয়া থাকে ।
  • ইয়ু ক্যান হাভ গ্রেট সেক্স উইথ ইয়োর সেলফ, নেইল ইট !
  • এই সহজ আত্মরতি’র অধিকারকে কে মুছিয়া ফেলিবার জন্যে এর গায়ে লজ্জা-ট্যাবু  ইত্যাদি স্ট্যাম্প মারিয়া দেওয়া হয়।  যাহাতে আমরা জানিতে না পারি যে আসলে masturbation is normal, pleasurable, and healthy!
  • বাট উই ন্যো ! Please, masturbate everybody।

(আবার শুরু হইল)

  • আচ্ছা, ইহার ইতিহাস তবে গোড়ায় কীরূপ ছিল ? (ব্রাউন ব্যাগ জিহ্বা উলটাইয়া কহে )
  • প্রাক-ইতিহাস সময়ে বা এখনো, একিরকম ভাবেই পুরুষেরই আধিপত্য। তবে প্রাক-ইতিহাস কিছু নিদর্শন, যেমন মাটির একটি ফিগারিন পাওয়া গিয়াছে খ্রিস্ট -পূর্ব চার শতকে, মাল্টায়, ‘হাগার কিম’ নামক এক মন্দির-সাইট  হইতে। এক উওম্যান হস্ত-মৈথুন করিতেছেন।
  • ওয়াও , আর তোমাদের দেশে

তাহার চোখ মটকানো প্রমাণ করিতে চাহে, যে ভারত মানেই …

  • কামসুত্র ছাড়াও আরও গল্প রহিয়াছে । স্কন্দপুরাণ অনুযায়ী, ( অন্য আরেকটি আখ্যান ও আছে, একটু ভিন্ন ) শিব একদিন হর্নি বোধ করিতেছেন, সেই সময় অগ্নিদেব  আসিয়া তাহকে নিজ হস্তে হস্ত-মৈথুন করাইয়া দেন ও পরে সেই সিমেন গিলিয়া ফেলেন। আর  সেই সিমেন খাইয়াই অগ্নি, স্কন্দ-দেবের জন্ম দিয়াছিলেন।

[তথ্য সূত্র – Articulate Flesh: Male Homo-Eroticism and Modern Poetry: Yale University Press]

  • গ্রীক মিথ অনুযায়ী হারমিস মাস্টারবেট আবিষ্কার করেন। তিনি ইহা প্যান কে শিখাইয়াছিলেন। জাক লাঁকার মত হইল – “primary addiction”. It is a form of jouissance (addictive pleasure) which does not pass through the Other. Lacan contrasts the jouissance of masturbation with the purer energy of desire, and the stern commands of the superego. Desire can never be satisfied, is constant, eternal. Although some desire is channelled into the drives (such as masturbation), not all of it is. We desire the things we do not have.

 

  • ভাবিতেছিলাম, একবারও লাকা-ফুকো ঝাড়িলেনা এযাবৎ
  • অকর্মণ্য মস্তিষ্কের ন্যায় কথা কহিওনা
  • তুমিও সাউথ এশিয়ান বেরসিকদের ন্যায়- ইয়ে না ঠিক আছে, মানে পারসোনালি লইওনা।  বিরক্তির আগমন হইয়া থাকে । যাকগে , বলিতেছিলাম- ক্যালানে প্রেমিকের তো আর দরকার নাহি। ভাইব্রেটর রহিয়াছে
  • রেসিজম  যাইবেনা তোমার, যা’ক … উত্তর হইল- আগেও আছিল
  • কাম অন। সিরিয়াসলি ? কবে নাগাদ হইতে ?
  • আদিকাল হইতেই । রানী ক্লিওপেট্রা মাস্টারবেশনে অতি উৎসাহী ছিলেন। তিনি এক অভিনব ভাইব্রেটর তৈয়ারী করান।  খ্রিস্ট -পূর্ব চুয়ান্ন সাল নাগাদ নির্মিত সেই ভাইব্রেটর তৈয়ার করা হইল শুকনো লাউএর খোলায় গাদা-গুচ্ছ মউমাছি ভরতি করিয়া। যদি এই খেলনাটির বাস্তব নিদর্শন পাওয়া যায় নাই এখোনো। কিন্তু ধরিয়া লইতেছি তাহা ছিল তবে সর্বপ্রথম ভাইব্রেটর । ভাইব্রেটর একশত বৎসর ধরিয়া নানা আঙ্গিক ঘুরিয়া আজ মর্ত্য-নারীর হস্তে আসিয়াছে। ১৮৯০ সালে সর্বপ্রথম হ্যান্ড- ক্র্যাঙ্ক ভাইব্রেটর তৈয়ারী হয়, ইংল্যান্ডে ।
  • ১৮৯০… মানে …ভিক্টোরিয়ান ইংল্যান্ডে ?
  • আজ্ঞে , ভিক্টোরিয়ান ইংল্যান্ডে
  • কি কও ?
  • হে হে , রহু ধৈর্যঙ্গ, আসিব

তো, বাষ্প চালিত সে খেলনার নাম আছিল- ম্যানিপুলেটর।  ডঃ গ্রেনভিলের তৈরী এই ভাইব্রেটর। ভিক্টোরিয়ান ইংল্যান্ড, নারীদের  এই স্বাভাবিক যৌন চাহিদাকে হিসটেরিয়া আখ্যা দিল। সেই হিসটেরিয়া-গ্রস্ত ভিক্টোরিয়ান নারীদের চিকিত্‍সার্থে ব্যবহৃত হইল গ্রেনভিলের তইরী এই ভাইব্রেটর।

  • উফফফ  …  Thanks to Victorians !  ভাবো .. উই সী সেক্স এভরিহোয়ের ,উই সেল সেক্স এভরিহোয়ের
  • বাট উই স্টিল ফীল ইট ইজ বেসিকালি রং এন্ড ডার্টি। আর নারীর আত্মতৃপ্তি বেশীর ভাগ পুরুষ বরদাস্ত করিতে পারেননা। সব দেশেই। কানেক্টিকাটে এই ১৭ শতকেও হস্তমৈথুনের অপরাধে প্রাণদণ্ড হইত
  • এই জন্যেই আমি কানেকটিকাটে কখনো যাইতে চাহিনা

(আবার শুরু হইল)

***************

আজ সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে ঝড় হইল খানিক ।

আবারো, ইরম এর নিন্দায় সোশ্যাল মিডিয়া ভাসিয়া যাইতেছে।

এদেশে বিবেকনান্দ যোগাভ্যাস করিয়া বীর্য-রক্ষা করিবেন । আর নিবেদিতাগণ ‘বিপ্লবের সেবাদাসী’ হইয়া যক্ষ্মায় প্রাণ দিবেন  । ইহা ভিন্ন অন্য  কোনরূপ  সামাজিক বলিদান গ্রাহ্য নহে। এইটিই হইল স্বছ-ভারতের একমাত্র  মডেল।

বেশ কিছুদিন কাটিয়া গিয়াছে।

রামবাবার আশ্রমে একটি কামধেনু আসিয়াছে। সে গোরু দুধ দেয় কিন্তু বাচ্চা দেয়না। মিনতিতে, একটি করিয়া স্বর্ণ ডিম পাড়ে। তাহার মল লইতে বিপুল কাড়াকাড়ি। আম্মা-গণ দেরও সেখানে দেখা গিয়াছে । তাহারা দাবী করিয়াছেন, গোবরে  মাইক্রোওয়েভ  নিরাময় হয়। তাহা শুনিয়া দলবল মোবাইলে ঘুঁটে লাগাইয়া ঘুরিতেছে।

হঠাৎ সেখানে পিছু পিছু মুন্নিও।

সে একটি স্বর্ণ-ডিম আকাঙ্ক্ষা করে। তাহার লেসবিয়ান সঙ্গিনীর প্রাক্তন বিবাহের ট্রমা হইতে মাস্তারবেশনে ভীতি জন্মাইয়াছে। অকারণে নিজেকে বঞ্চিত রাখিতেছে । সে  এইরূপ অরগ্যাজম-গ্যাপের বিরোধী। তাহার দাবী : সে  ইহার নিরাময় প্রত্যাশা করে। কিছুদিন আগে  টিভিতে  আম্মাদের বলিতে শুনিয়াছে-  এই ডিম সিদ্ধ খাইলে সব নিরাময় হয়। আম্মারা রামবাবার ন্যায়  হাড়ে বুদ্ধিমান নহে। শুনিয়া তাহারা হাঁই হাঁই করিয়া উঠিল।

রামবাবা, সে অভিসন্ধি বুঝিল। কহিল-

  • ডিমের কি বা প্রয়োজন ?  গো-মল লইয়া যাও ।

কিন্তু তাহার এক গোঁ। ডিম না লইয়া সে কিছুতেই যাইবেনা । শেষমেষ সে অনশনে বসিল।

ঠ্যাঙ্গাড়ে আসিয়া তাহাকে খেদাইতে লাগিল। সেই গোলযোগের মুহূর্তে  কি হইয়াছে, টিভি-টীম উপস্থিত হইয়া,  নেশনকে,  কি ঘটিতেছে তাহা জানাইবার দাবী ঠুকিয়া দিল । মুহূর্তে দারুণ ক্যাচাল শুরু হইয়া গেল।

এমতাবস্থায়, ট্র্যাক  রাখিতে পারি নাই, টানা-মানিতে মুন্নি নাকি  ভয় দেখাইয়াছে, তাহাকে ধরিলে সব্বার জামা টানিয়া পিউবিক-কেশ দেখাইয়া ছাড়িবে ।পরবর্তীতে, কী হইয়াছে কী বলিব, দস্যু মোহন কায়দায়  কী করিয়া যে কী ঘটিয়া গেল, কিছুই বুঝিতে পারিলাম না।

শুধু শুনিয়াছি- মুন্নিকে কেহ “টাচ” করিতে পারে নাই,। কিন্তু নেশনময়  থুঃ-থুক্কার,  মারদাঙ্গা, মুন্নির বাড়ি ভাংচুর এইসব ঘটিয়া গিয়াছে। মুন্নির সমর্থকেরা জনসভা করিয়াছে । ল’ইয়ার কহিয়াছে  – তো তাহা-ইহা অথবা যাহাই  ঘটুক না কেন, রাষ্ট্র-মতে, আখির মুন্নি হি বদনাম হুয়ী ।

মুন্নি ঠিক করিয়াছেন, তিনি জোর মামলা ঠুকিবেন।

 

**********

আগস্টের পুণ্য মাস। আজ ১৫ তারিখ। জওহরলাল নেহরু ইউনিভার্সিটি নোটিস মারিয়াছে স্বাধীনতা পালনে ফ্যান্সি ড্রেস প্রতিযোগীতা হইবে।

মুন্নি তেরঙ্গা বিকিনি পরিয়া লইল। ফ্যান্সি ড্রেসে যাইবার পূর্বে সে পাছা দুলাইয়া গাহিতেছে – ‘মা তুঝে সালাম !’

বিশেষ রিসার্চ / তথ্য ঋণ : আম্মাস ডট কম, Articulate Flesh: Male Homo-Eroticism and Modern Poetry: Yale University Press, জওহরলাল নেহরু ইউনিভার্সিটি

বি.দ্র : এই রচনা গুরু-চন্ডালীতে লিখা হইল। ব্রাহ্মন্য গুরুবাদকে পিষিয়া ‘চণ্ডাল’ সত্তা’র সহিত মণ্ড উৎপন্ন করা, যাহা যেহেতু আরোপিত ফাউ নহে, অতএব অবশ্যম্ভাবী !

 

Tags
Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Close
Bitnami